মোবাইলে টাকা আয় করার সহজ উপায় : অনলাইন ইনকাম ২০২১

অনেক ভাই জানতে চান মোবাইল দিয়ে কি অনলাইন থেকে টাকা আয় করা সম্ভব? আসলেই প্রশ্নটা আসা স্বাভাবিক! কেননা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় সহজে টাকা ইনকাম এর নামে যা হয় টা হলো প্রতারনা। আজকে আমার এই পোস্টে আমি কিছু কাজের তালিকা দিবো যার মাধ্যমে আসলেই মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা পসিবল। 

কিন্তু যেহেতু এখানে সহজে ঘরে বসে এক ঘণ্টায় হাজার হাজার ডলার এর লোভ দেখিয়ে প্রতারনা করার কোন টিপস দেওয়া হবে না সেহেতু নিজেকে কিছুটা কষ্ট করিয়েই টাকা ইনকাম করতে হবে।

অনলাইন বলেন কিংবা অফলাইন টাকা আয় করা কোথাও ই সহজ না ভাই। ঘরে বসে টাকা আয় করতে তেমন দক্ষতা লাগে। আজকে আপনাদের তেমন কিছু পথ এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো যে পথে আপনি স্কিল গঠন করতে পারলে টাকা আয় করতে পারবেন বলে আশা করি।

যা যা পেতে পারেন এই পোস্টে ঃ 

  1. মোবাইলে ফ্রিলান্সিং করে টাকা ইনকাম
  2. মোবাইলে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয়
  3. মোবাইল এপ থেকে টাকা আয় করা
  4. কিভাবে মোবাইল দিয়ে ফ্রিলান্সিং করতে পারেন?
  5. Android মোবাইল দিয়ে ভিডিও বানানোর উপায়
  6. ফেসবুক বিজনেস করে ইনকাম
  7. এফিলিয়েট করে অর্থ উপার্জন টিপস  
  8. মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করুন 2021

মোবাইলে ফ্রিলান্সিং করে টাকা ইনকাম

ফ্রিলান্সিং করে টাকা আয় করা যায় অনেকে করে এটা হইতো আপনার কাছে অজানা না। আপনি চাইলে মোবাইল দিয়েও ফ্রিনলান্সিং করতে পারেন। আসলে ফ্রিলান্সিং এর ক্ষেত্র অনেক বিশাল। এখানে শুধুই অফিসিয়াল ভারি ভারি কাজ ই হয় এমন না। আবার এখনকার মোবাইল সেট গুলোও একেকটা কম্পিউটার এর মতই ক্ষমতাশীল। আগে যেসব কাজ পিসি তে করতেও কষ্ট আর সময় লাগতো এখন সেসব কাজ মোবাইলের এপের মাধ্যমে সহজে করা যায়। 

আপনি চাইলে মোবাইল দিয়ে ফ্রিলান্স মার্কেট প্লেস গুলোতে নিজের মত কাজ খুজে নিতে পারেন। তালিকার ব্রিফ আলোচনা শেষে কিভাবে মোবাইল দিয়ে ফ্রিলান্সিং করবেন তা নিয়ে আলোচনা করবো।

আরো জানুন ঃ ফ্রিলান্সিং করে আয় 

মোবাইলে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয়

বিলিভ করেন বা না করেন, আমার কাছে পিসি থেকে মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট  এখন সহজ মনে হয়। আর মোবাইল এর একেক ভিডিও এডিটিং এপ ও আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী, অনেক ফিচার দেয় যা ইউজ করে আপনি সম্পূর্ণ প্রফেশনাল লেভেলের ভিডিও ক্লিপ বানাতে পারবেন। কিন্তু এর জন্য আপনাকে দক্ষ হতে হবে, সময় দিতে হবে আর ধৈর্য  ধরতে হবে। 

মোবাইল এপ থেকে টাকা আয় করা

অনেক এপ আছে যেগুলো বলে টাকা দিবো কিন্তু কাজ শেষে আর টাকা দেয় না। সোজা বাংলায় ফুটে যায়! এমন এপের পরিমান বেশি। তবে এও ঠিক ভালো এপ ও আছে যারা কাজের বিনিময়ে টাকা পে করে থাকে। বিভিন্ন সার্ভে তে জয়েন করা, রিভিউ পোস্ট করা, ওয়েব সাইট টেস্ট করা ইত্যাদি অনেক ছোট ছোট কাজের বিনিময়ে তারা ডলার পে করে। কিন্তু কাজ যেহেতু ছোট সেহেতু এখানে টাকা আয়ের পরিমান ও ছোট বা কম হয়। কোন app দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়? 

টাকা ইনকামের এপ এর তালিকা ঃ Android Add দিয়ে টাকা আয় 

ফেসবুক বিজনেস করে ইনকাম ২০২১

ফেসবুক বিজনেস বা F কমার্স তো এখন অনেকের কাছেই পরিচিত। আমরা বিভিন্ন গ্রুপ, পেজ দেখি যারা শুধুমাত্র ফেসবুক কেন্দ্র করেই তাদের বিজনেস চালিয়ে নিচ্ছে। এসব বিজনেস কিন্তু খুব বড় বা অনেক টাকা ইনভেস্ট করে করা এমন নয়। একজন ভালো কেক বানাতে পারে সে তার শহর / শহরের আসে পাশে তার বানানো কেক সেল করে বেশ ভালোই টাকা ইনকাম করছে।

কেউ আবার ভালো হিজাব বা পোশাক এর খোজ জানে সে পাইকারি তে সেসব পোশাক কিনে ফেসবুক এর বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে সেসব বিক্রি করে টাকা কামাচ্ছে।

এই যে বায়ার খুজে বের করা, কার থেকে প্রোডাক্ট কিনে কাকে সেল করবেন এর সব কিছুই বলতে গেলে আপনি মোবাইল দিয়ে ফেসবুক ইউজ করেই করতে পারবেন। শুধু ডেলিভারি দিতে হবে অফ্লাইনে!! 

আপনি যদি সিরিয়াস হোন এবং কাস্টমার এর চাহিদা বুঝে ব্যবস্থা নিতে সক্ষম হোন তাহলে ছোট থেকে শুরু করলেও  বড় হতে সময় লাগার কথা না। 

আরো বিস্তাতির পাবেন ঃ ফেসবুক এর মাধ্যমে টাকা আয় 

এফিলিয়েট করে অর্থ উপার্জন টিপস  

নিজে প্রোডাক্ট সেল করা বেশ সময় আর কষ্টের ব্যাপার। আপনি যদি এসবে যেতে না চান তাহলে এফিলিয়েট মার্কেটিং করেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এফিলিয়েট করে টাকা আয় করা আসলে অনেক বড় ব্যাপার, কয়েক লাইনে বুঝানো যাবে না। এর জন্য বিস্তারিত পোস্ট আমরা অন্যদিন করবো। 

অনলাইন বিজনেস ঃ কিভাবে Online কিছু সেল করবেন? 

কিভাবে মোবাইল দিয়ে ফ্রিলান্সিং করতে পারেন?

আপনি ফ্রিলান্সিং এর মার্কেট গুলোতে গেলে দেখবেন টেকনিক্যাল কাজ ছাড়াও অনেক হাবিজাবি কাজ ও সেখানে পাওয়া যায়। যেই কাজ গুলো করতে পিসি লাগে না বরং আপনি সময় নিয়ে মোবাইল দিয়েই করতে পারেন।

যেমন অনেক কোম্পানি তাদের নতুন কোম্পানির জন্য ফেসবুক এ প্রফেশনালি ডিজাইন করা ফেসবুক পেজ তৈরি করতে চাই। আপনি এই কাজ আপনার মোবাইল দিয়েই করতে পারবেন।  কিন্তু আপনাকে জানতে বিজনেস ক্লাস ফেসবুক পেজ কিভাবে তৈরি করে। এজন্যই বলছি স্কিল লাগবে। স্কিল থাকলে কাজের অভাব নাই।

ছবি ঃ ফাইবার থেকে শিক্ষণীয় কাজের জন্য নেওয়া। অন্য কোথাও ইউজ করা নিষেধ। 

উপরে দেওয়া ছবিটি দেখুন, এটি ফাইবার থেকে নেওয়া মাত্র ২ জনের গিগের ছবি। একজন তো বিজনেস পেজ অপ্টিমাইজ করার জন্য ৮০ ডলার করে নিচ্ছে। জি এটাই সঠিক, কাজ পারলে কাজের সঠিক দাম অ নেওয়া উচিত আর আনার কাজ যদি পারফেক্ট হয় তাহলে আপনার ক্লায়েন্ট অ আপনাকে মোটা অংকের টাকা পে করতে দ্বিধা করবে না। 

রানা ফাহাদ খান ভাই মাশ আল্লাহ্‌ ১৭৫ বার কাজ ডেলিভারি দিছে এবং ৫স্টার রিভিউ অ পাইছে। এর কারন তিনি কাজ জানেন, কথা বলতে জানেন, বায়ার ডিল কিভাবে করতে টা জানেন। আপনি যদি টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আপ্নাকেও কাজ পারতে হবে নইতো মোবাইল না সুপার কম্পিউটার দিয়েও কাজ নাই!!!!!!!! 

একই কথা Linkedin  এর ক্ষেত্রেও সেম। অনেক ভালো ভালো স্টুডেন্ট ও জানে না কিভাবে সুন্দর করে প্রফেশনালি লিঙ্কড ইন একাউন্ট খুলতে হয়। আপনি এই কাজ পারলে মোবাইল দিয়েও সেটা করতে পারবেন। 

এমন আরো অনেক কাজ আছে যেগুলো আপনি একটু খুজলে পাবেন যা মোবাইল দিয়েই করা সম্ভব। 

আমি কিছু উদাহরণ দিলাম , আপনি খুজতে থাকুন। 

Android মোবাইল দিয়ে ভিডিও বানানোর উপায়

কয়েক বছর আগেও পিসি দিয়ে যেসব ভিডিও বানাতে ভিডিও মেকারদের ঘাম ছুটে যেতো এখন মোবাইল দিয়েও ভালো ভিডিও বানাতে পারে। বানানো সম্ভব। অনেক অনেক এপ আছে যার মাধ্যমে আপনি ক্লিক ক্লিক করেই ভালো মানের ভিডিও বানাতে পারবেন।

  1. Kinemaster
  2. VivaVideo
  3. Adobe

ভিডিও বানানোর জন্য অন্যতম এপ। ভিডিও বানাতে Kinemaster এপ টি আমার নিজের পছন্দের। সহজে পাওয়া যায়, ইউজ করাও সহজ। মোবাইল দিয়ে ভিডিও বানানো নিয়ে আমাদের বিস্তারিত তালিকা আছে দেখে নিতে পারেন।

 আরো দেখুনঃ  ভিডিও বানানো এপের লিস্ট 

মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করে টাকা আয় ঃ

আমি নিজেই শিউর না মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করে আদৌ সফল হওয়া যাবে কিনা, তবে  এই কথা ঠিক যে আপনি চাইলে মোবাইল দিয়েও ব্লগিং করতে পারেন। আর সফল হলে টাকা আয়ের অনেক গুলো পথ পেতে সমস্যা হবার কথা না।

আর্টিকেল লিখে আয় ঃ ব্লগিং এর সাথে লেখালেখি ছাড়াও আরো বেশ কিছু ব্যাপার জড়িত থাকে তাই শুধু মোবাইল দিয়ে ব্লগিং এ সফল হওয়া যাবে কিনা এই ব্যাপারে আমার সন্দেহ আছে। তবে আপনি চাইলে শুধু লেখালেখি করেও টাকা আয় করতে পারেন।

ফেসবুক এ অমুক তমুক কে খুশি করতে কত শত শত শব্দের এসএমএস লিখে ফেলেন এই মোবাইল দিয়েই তো!! তাই না?

তাহলে আপনি চাইলে ভালো মানের তথ্য নির্ভর আর্টিকেল লিখেও টাকা আয় করতে পারবেন আপনার হাতের মোবাইল দিয়েই। এখন বাংলা অনেক সাইট ও কন্টেট কিনে থাকে।

আপনার লেখা যদি ভালো হয়, বেশি মানুষ পড়ে তাহলে আপনার আয় ও তেমন হবে।

রিসেলিং বিজনেস ঃ এই বিজনেস করতে তো ভালো কনফিগের পিসির দরকার নাই ভাই। আপনি মাঝারি মানের ইনভেস্ট দিয়েই সোশ্যাল মিডিয়া ইউজ করে প্রোডাক্ট বায় সেল রিসেল করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

Product Photography : আপনার হাতে থাকা মোবাইল যদি ভালো মানের ক্যামেরা সমৃদ্ধ হয় তাহলে মিনি স্টুডিও কিনে আপনি প্রোডাক্ট এর ছবি তুলে সেগুলো কে অনলাইন স্টোরে কিংবা যারা ফেসবুক এ বিজনেস করে তাদের কাছে সেল করতে পারেন। বেশি আয় হবে না তবে চেষ্টা করতে সমস্যা কি? 

ছবি ঃ প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি

শেষ কথা কিন্তু জরুরী ঃ আপনি মোবাইল দিয়ে চেষ্টা করেন বা পিসি দিয়ে। আপনি অনলাইনে টাকা আয় করতে চান কিংবা অফলাইনে। যেখানে যে ভাবেই চেষ্টা করুন না কেন টাকা আয় করা সহজ না। ঘরে বসে ক্লিকে ক্লিকে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করা গেলে কেউ রাত দিন এক করে ঘাম ঝরিয়ে টাকার জন্য কাজ করতো না। 

২৫ বছর বয়স পর্যন্ত লেখাপড়ে করে একজন ছেলে যখন জবে জয়েন করে তখন মাস শেষে তার ইনকাম কত থাকে? ১৫ হাজার। বেশি হলে ২০ হাজার।

২৫ টা বছর ধরে লেখাপড়া করে ২০ হাজার টাকা আয় করে আর আপনি ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে বা পিসি দিয়ে ক্লিক ক্লিক করেই মাসে লাখ লাখ টাকা কামাতে চান এটা হাস্যকর না? অবাস্তব না?

বাস্তবে চলুন। দক্ষতা বৃদ্ধি করুন, কাজ শিখুন। আল্লাহ্‌ চাইলে টাকা আয় শুরু হয়ে যাবে ইনশা আল্লাহ্‌। 

Leave a Comment

Copy link
Powered by Social Snap