সার্চ ইঞ্জিন কি কাকে বলে এবং সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে ?

 আমাদের টেক রিলেটেড ধারাবাহিক পোস্টে আজকে থাকছে সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে এর মানে  কি এবং সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে এসব নিয়ে সোজা বাংলায় আলোচনা।

সোজা বাংলায় বললাম কারন বই এর মত শক্ত ভাষায় লিখলে অনেকের জন্য বুঝতে কষ্ট হয়! আর তাছাড়া বই এর মত করে বুঝার জন্য বই ই তো আছে! ব্লগ পড়ার কি দরকার!! যারা ICT এর জন্য বুঝতে চান তাদের বুঝতে সহজ হবে আশা করি। 

কি কি পাবেন আজকের পোস্টে 

  1. সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে ও এর মানে কি
  2. সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার
  3. কিছু সার্চ ইঞ্জিন এর তালিকা
  4. সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে
  5. Search ইঞ্জিন এর ভাল খারাপ দিক

সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে? মানে কি ?

সার্চ ইঞ্জিন হলো এক প্রকার সফটওয়্যার যা ইন্টারনেট এর বিভিন্ন সার্ভারে থাকা তথ্য নিয়মিত ক্রল করে নিজের ডাটাবেজে জমা রাখে, ইনডেক্স করে এবং ইউজার যখন কোন কিছু সার্চ করে  তখন সেই সফটওয়্যার তার ডাটাবেজে থাকা তথ্য থেকে যাচায় করে ইউজারের কাঙ্ক্ষিত বিষয় বস্তুকে তুলে ধরে বা প্রকাশ করে।

অর্থাৎ নেটে কোটি কোটি তথ্য থেকে আপনি যে “সার্চ ইঞ্জিন কি ” লিখে গুগলে সার্চ দিলেন আর গুগল আপনাকে কয়েকটি সাইঠ এর রেজাল্ট দেখালো এই সার্চ রিলেটেড রেজাল্ট দেখানোর ইঞ্জিন বা প্রোগ্রাম কে সার্চ ইঞ্জিন বলে।

সার্চ ইঞ্জিন এর বর্তমান সেরা উদাহরণ হলো গুগল।

গুগলের ইতিহাস জানতে আমাদের এই পোস্ট পড়ুন ঃ গুগলের তৈরির তথ্য 

সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার ? 

প্রধানত ৩ প্রকার। প্রাইমারি, সেকেন্ডারি এবং টার্গেটেড সার্চ ইঞ্জিন। আমরা সচারচর যে সব সার্চ ইঞ্জিন ইউজ করে থাকি মূলত প্রাইমারি সার্চ ইঞ্জিনের অধিনে পড়ে ।

সার্চ ইঞ্জিন এর নামের তালিকা 

  1. গুগল
  2. ইয়াহু
  3. বিং
  4. ডাক ডাক গো
  5. ইয়ান্ডেক্স
  6. বাইডূ
  7. পিপিলিকা 
  8. CC Search
  9. Swisscows
  10. StartPage
  11. Search Encrypt
  12. Gibiru
  13. OneSearch
  14. Wiki.com
  15. Boardreader
  16. giveWater

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে? 

সার্চ ইঞ্জিন কাকে বলে জানলাম, কয়েকটি পরিচিত অপরিচিত সার্চ ইঞ্জিনের নামও জানলাম। এখন জানানোর চেষ্টা করবো Search Engines গুলো কিভাবে কাজ করে? এদের সবার কাজের ধরন কি এক নাকি ভিন্ন ভিন্ন? 


কিভাবে কাজ করে ?গুগল বিং ইয়াহু এসব সার্চ ইঞ্জিন গুলো ওয়েবে থাকা বিভিন্ন পেজে তাদের বট পাঠিয়ে থাকে, এসব বট গুলো নিয়মিত ওয়েব পেজ গুলো ক্রল করে আর সেসব পেজের তথ্য কালেক্ট করে তার সার্ভারে ইনডেক্স করে রাখে। ইউজার যখন কোন শব্দ বা অন্য কিছু লিখে কিছু অনুসন্ধান করে তখন সার্চ ইঞ্জিনে থাকা তথ্য অনুযায়ী ইউজার কে রিলেটেড ওয়েব পেজটি ফলাফলে এনে দেখায়।


কোন সাইট বা ওয়েব পেজে কোন ধরনের তথ্য কন্টেন্ট আছে তা সার্চ ইঞ্জিন গুলো আগে থেকেই যাচায় বাছায় করে রাখে, সাইটে নতুন কোন লেখা বা কন্টেন্ট আপডেট করলে বট তাও ক্রল করে তার সার্ভারে জমা করে।
উদাহরণ দিয়ে বলি, ধরুন সাজিদ হলো একটি সার্চ ইঞ্জিন!! সে আপনার এলাকার সব বাড়ির খবর জানে! কোন বাড়িতে কে থাকে কোন বাড়ির পেশা কি ইত্যাদি ইত্যাদি। আপনি এখন সাজিদ এর কাছে অনুসন্ধান  করবেন অমুক বাড়ির লোক এর ছেলের নাম বলো !! যেহেতু সাজিদ আগে থেকেই এলাকার সব বাড়ির তথ্য জানে তার  কাছে জমা আছে সেহেতু তখন সে আপনাকে আপনার জানতে চাওয়া প্রশ্নের জবাব বা ফলাফল দেখাবে কিংবা আপনাকে সেই বাড়িতে পৌছে দিবে নিজেই জেনে নিতে পারেন সেজন্য ।


এই যে আপনি গুগলে সার্চ করে আমাদের Dhurr24.com সাইটে আসছেন! এটা হইলো গুগল আপনাকে নিজে ডিরেক্ট তথ্য না দিয়ে বরং কোন সাইটে গেলে তথ্য পাবেন সেটা দেখানোর বাস্তব উদাহরণ। 
একেক সার্চ ইঞ্জিনের কাজের ধরন একেক রকম হতে পারে। আবার একই রকম ও হতে পারে। কিন্তু যেহেতু এটি একটি সফটওয়্যার এবং ওপেন সোর্স না বরং কপিরাইটেড সেহেতু সবার আলাদা আলাদা প্রোগ্রাম থাকতে পারে। গুগল কিভাবে কাজ করে তা তারা পাব্লিক্লি প্রকাশ করে না, এটি তাদের ট্রেড সিক্রেট!!


আবার DuckDuckGo নিজে সব সাইটের তথ্য যাচায় না করে উল্টা গুগলের রেজাল্ট কে মডিফাই করে নিজে দেখায়!!
যারা প্রাইভেসি নিয়ে সতর্ক তাদের উচিত ডাক ডাক গো ইউজ করা।

 ভালো খারাপ দিক

ভালো দিক হলো এটি আমাদের কাজ সহজ করে দিছে। কোটি কোটি ইনফরমেশন আমরা সহজে খুজে পাচ্ছি। সার্চ ইঞ্জিন না থাকলে আমাদের শত শত সাইট এর এড্রেস এর নাম মুখস্ত করে রাখতো মনে হয়!! এদিক থেকে সার্চ ইঞ্জিন আমাদের সময় আর শ্রম কমাই দিছে!


খারাপ দিক হলো সার্চ ইঞ্জিন গুলো আমাদের পার্সোনাল তথ্য নিজের কাছে জমা রাখে এবং আমাদের না জানিয়েই সরকারের কাছে, বিভিন্ন কোম্পানির কাছে এসব তথ্য বিক্রি করে।
যেমন ধরুন আপনার কোন যৌন রোগ আছে! আপনি তা নিয়ে সার্চ ইঞ্জিনে কিছু জানার জন্য খোজাখুজি করলেন! আপনার এই সার্চ টার্ম থেকেই সার্চ ইঞ্জিন গুলো আপনার সম্পর্কে জানতে পারবে আর এই তথ্য বিক্রি করে বিজনেস করবে বিভিন্ন হাস্পাতাল ক্লিনিক ডাক্তারের সাথে!!!


আবার আপনি লন্ডনে নতুন গেছেন, সেখানে কোথায় মসজিদ আছে তা সার্চ করলেন! ঐদিকে সার্চ ইঞ্জিন গুউউউউগল আপনাকে জঙ্গির লিস্টে ফেলে আপনাকে নজরে রেখে দিবে আর আপনার তথ্য গোয়েন্দা সংস্থার কাছে তুলে দিবে!!
আমরা ফ্রি তে সার্চ ইঞ্জিন ইউজ করলেও সার্চ ইঞ্জিন গুলো আমাদেরকেই বিক্রি করে বিজনেস করে 

সার্চ ইঞ্জিন গুলো সম্পর্কে জানা অজানা তথ্য 

Bing : মাইক্রোসফট কোম্পানির সার্চ ইঞ্জিন বিং। গুগলের পর নরমাল সার্চ ইঞ্জিনের তালিকা করলে বিং গুগলের পরেই থাকবে। ইউটিউব এর বাইরে ভিডিও সার্চ এর জন্য বিং অন্যতম। শুরুতে বিং এ সার্চ করলে পয়েন্ট পাওয়া যেত যে পয়েন্ট দিয়ে মাইক্রোসফট স্টোর থেকে প্রোডাক্ট কিনা যেতো।


গুগল ঃ গুগল নিয়ে তো আপনারা মোটামোটি সবাই জানেন। আমেরিকার স্টান্ডফরড ভার্সিটির ২ জন ছাত্র গুগল তৈরি করে। শুরুতে গুগলের নাম ছিলো “Backrub”বর্তমানে গুগল হলো এলফাবেট কোম্পানির অধিনে থাকা একটি কোম্পানি। ২০০৬ সালে গু গল ইউটিউব কিনে নেই এবং ভিডিও শেয়ারিং Search ইঞ্জিন ও তাদের করে নেই!!
গুগলের অনেক সফলতা আছে ঠিক কিন্তু সাথে সাথে এর অনেক অসফল প্রজেক্ট ও আছে! ফেসবুক এর সাথে পাল্লা দিতে গুগোল Google+ সোশ্যাল সাইট নিয়ে আসে কিন্তু সেটি সফল হতে পারেনি!! এখন সেটা বন্ধ!! 


Yandex : রাশিয়ার নিজেদের সার্চ ইঞ্জিন। অনেকে একে রাশিয়ার গুগল বলে থাকে। আসলেই তেমন কিছু। গুগল যেমন শুধু সার্চ ইঞ্জিনেই সীমাবদ্ধ নেই তেমনি ইয়ান্ডেক্স ও সার্চ ইঞ্জিনের বাইরেও অনেক সার্ভিস দিয়ে থাকে। রাশিয়ার মোট নেট ইউজারের ৪৫% এর বেশি ইউজার ইয়ান্ডেক্স ইউজ করে।


Baidu : আমেরিকার গুগল থাকবে, রাশিয়ার ইয়ানডেক্স থাকবে আর চায়নার সার্চ ইঞ্জিন থাকবে না এটা কেমনে হয়?  বাইডু হলো চীনের নিজেদের সার্চ ইঞ্জিন। 

 
সিসি সার্চ ইঞ্জিন ঃ এটি আসলে ক্রিয়েটিভ কমন্স প্রোডাক্ট খুজার সাইট । আপনার কোন কপিরাইট ফ্রি দরকার হলে সিসি সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করতে পারেন। এটি বিভিন্ন সাইট খুজে সিসি লাইসেন্স এর অধিনে থাকা পিকচার খুজে আনবে। 

SwissCows : যারা নিজেদের প্রাইভেসি নিয়ে সতর্ক থাকতে পছন্দ করেন তাদের জন্য এটি ফ্রেশ একটি সার্চ ইঞ্জিন হতে পারে। সুইস কাউস বা সুইস গরু! তাদের ঘোষণা মতে তারা কোন ডাটা ট্রাক করে না জমা রাখে। 

DuckDuckGo : প্রাইভেসির জন্য এটি পরিচিত একটি সার্চ ইঞ্জিন। এই সার্চ ইঞ্জিন নিজে গুগল থেকে আপনার জন্য তথ্য খুজে আনলেও গুগলের কাছে আপনার কোন ডাটা দেয় না এবং নিজেও জমা রাখে না। আসতে আসতে ডাক ডাক গো পরিচিতি পাচ্ছে।

Search Encrypt :  এটিও তথ্য গুগল থেকে নিলেও তারা নিজেদের আলাদা এঙ্ক্রিপ্ট মেথড ইউজ করে । ফলে প্রাইভেসি সেফ থাকে। এর আরেকটি ভালো দিক হল আপনি কি সার্চ করছেন তা একটা সময় নিজে নিজেই মুছে যায়! 

উইকি.কমউইকি সার্চ ইঞ্জিনউইকি ডটকম হাজার হাজার উইকি থেকে নেট ফলাফলের ফলাফলগুলি টানছে।যারা উইকিপিডিয়া জাতীয় সাইটে পাওয়া যায় তেমন সম্প্রদায়ের নেতৃত্বাধীন তথ্যের প্রশংসা করেন তাদের জন্য এটি উপযুক্ত সার্চ ইঞ্জিন।


 Boardreaderবোর্ডরেডার অনুসন্ধান ইঞ্জিনআপনি যদি কোনও নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কে কোনও ফোরাম বা বার্তা বোর্ড সন্ধান করতে আগ্রহী হন তবে বোর্ডরেডার আপনার প্রথম স্থান হওয়া উচিত।এই অনুসন্ধান ইঞ্জিনটি অনলাইনে বিভিন্ন বার্তা বোর্ড এবং ফোরামগুলি থেকে এর ফলাফলগুলি অনুসন্ধান করে। আপনি কেবল কয়েকটি কীস্ট্রোক দিয়ে আপনার চাইছেন ফোরামটি সন্ধান করতে সক্ষম হওয়া উচিত।


giveWaterগিভওয়াটার হ’ল একটি স্ব-বর্ণিত “সামাজিক প্রভাব অনুসন্ধান ইঞ্জিন” যা লক্ষ্য করে যে উন্নয়নশীল বিশ্বজুড়ে নিম্নমানের জল এবং অকার্যকর স্যানিটেশন সম্পর্কিত সমস্যা সমাধানের জন্য ব্যবহারকারীদের ক্ষমতায়িত করে বিশ্বজুড়ে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।সংস্থাটির সিইও চ্যারিটির প্রতিষ্ঠাতা : ওয়াটার , স্কট হ্যারিসনের সাথে দেখা করার পরে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং তার নিজের কাজের মাধ্যমে একটি পার্থক্যের চেষ্টা করার জন্য অনুপ্রাণিত হয়েছিল।


 একোরুএকোরু সার্চ ইঞ্জিনমজার বিষয় হচ্ছে, একোরু তার তথ্য যেখানে তার মুখ রয়েছে সেখানে তার ডেটা সেন্টারগুলির জন্য নবায়নযোগ্য শক্তির উত্সগুলি ব্যবহার করে এবং তাদের সার্ভারগুলিতে কোনও ব্যবহারকারী বা অনুসন্ধান-সম্পর্কিত ডেটা সংরক্ষণ না করে নাগরিক অধিকারের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে।


ইকোসিয়াগ্রহটি একবারে একটি করে গাছ বাঁচাতে চাইছেন? তারপরে এই পরিবেশ বান্ধব সার্চ ইঞ্জিনটি পরীক্ষা করে দেখুন!এটি চমক হিসাবে আসতে পারে তবে আপনার গুগল অনুসন্ধানগুলি আসলে বেশ কিছুটা সিও 2 তৈরিতে অবদান রাখে।এই ইস্যুটির বিরুদ্ধে লড়াই করতে ইকোসিয়া গাছ লাগাতে অনুসন্ধান ইঞ্জিন অনুসন্ধান থেকে প্রাপ্ত উপার্জনকে ব্যবহার করে। সাধারণত ইকোসিয়ায় একটি নতুন গাছ লাগানোর জন্য প্রায় 45 টি অনুসন্ধান প্রয়োজন।

টুইটার
রিয়েল-টাইম সার্চ ইঞ্জিন হিসাবে টুইটারটি বীট করা শক্ত। এটি জরুরি অবস্থার ক্ষেত্রে মিনিট মিনিট আপডেটের জন্য উপযুক্ত জায়গা।গুগলের অ্যালগরিদম শেষ পর্যন্ত ধরা পড়বে, তবে এই মুহুর্তের উত্তাপে কোনও কিছুই টুইটকে হারাতে পারে না।


 স্লাইড শেয়ারস্লাইডশেয়ার আপনাকে ডকুমেন্টেড স্লাইডশো উপস্থাপনাগুলির জন্য অনুসন্ধান করতে অনুমতি দেয়।আপনি ইবুক এবং পিডিএফ সন্ধান করতে পারেন, এটি প্রস্তুত করার জন্য আপনার যদি ব্যবসায় উপস্থাপনা থাকে তবে এটি একটি দুর্দান্ত সরঞ্জাম হিসাবে তৈরি করে।স্লাইডশেয়ার আপনাকে স্লাইডগুলি সংরক্ষণ করতে এবং এমনকি আপনার স্থানীয় কম্পিউটারে পুরো স্লাইডশোটি ডাউনলোড করার অনুমতি দেয়।

Leave a Comment

Copy link
Powered by Social Snap