ফ্যাশনেবল স্টাইলিশ হওয়ার উপায় : নিজেকে স্মার্ট হ্যান্ডসাম করে তোলার উপায়

সহজে নিজেকে হ্যান্ডসাম স্টাইলিশ হিসাবে তুলে ধরার কিছু টিপস 

আজকের পোস্টের টাইটেল দেখে  বুঝতে পারছেন কোন টপিকে কথা বলবো। মূল বিষয়ে যাওয়ার আগে একটু জেনে রাখা ভালো কিংবা জানিয়ে রাখা ভালো স্টাইলিশ কাকে বলে ? কে স্মার্ট হ্যান্ডসাম এসবের টুকটাক। কারন অনেকের কাছে চেহারা সুন্দর হলেই সেই স্মার্ট অনেকের কাছে দামি পোশাক পরলে সে ফ্যাশনেবল স্টাইলিশ হিসাবে ভেবে বসে। অথচ স্মার্টনেস,  হ্যান্ডসাম হওয়া এসবের বাইরেও অনেক কিছুর সাথে রিলেটেড। আজকে বিস্তারিত সেসব নিয়েই কথা বলার চেষ্টা করছি। 

বাইদারাস্তা, এই পোস্ট এর টিপস গুলো মূলত ছেলেদের জন্য। মেয়েদের জন্য না। 

যারা পুরা পোস্ট পড়ার সময় ও ধৈর্য রাখেন না কিন্তু স্টাইলিশ হ্যান্ডসাম  হওয়ার উপায় জানতে চান তাদের জন্য শুরুতেই ১২ টি বুলেট টিপস দিচ্ছি। আশা করি আপনার কাজে লাজে লাগবে। 

  1. সুন্দর পারফিউম ইউজ করুন
  2. আঞ্চলিক টান মুক্ত কথা বলুন
  3. শালিন পোশাক পরেন, 
  4. ট্রেন্ডে গা ভাসাবেন না, 
  5. সেলিব্রেটিদের একদম ফলো করবেন না। একদম না। বিলিভ মি ওদের স্টাইল ওরা ইউনিকনেস দেখে করে বলেই সুন্দর দেখায় কিন্তু আপনারা যখন গনহারে ওদের ফলো করেন তখন সেই স্টাইল আর ইউনিক থাকে না!! তাই স্রোতে গা ভাসায়েন না।
  6. দাঁত ঠিক রাখুন মানে সুন্দর রাখুন পরিস্কার রাখুন।
  7. ড্রেস এর সাথে সাথে হাত পা নখের যত্ন নিন যাতে দামি পোশাক এর ফাক দিয়ে এসবের দুর্বলতা দেখে কেউ আপনাকে নিয়ে নেগেটিভ কিছু না ভাবে।
  8. মেয়েদের পটানোর চিন্তা বাদ দিয়ে নিজেকে তৈরি করুন। মেয়ে পটানোর চিন্তা থেকে যেই স্টাইল আপনার কাছে ভালো লাগবে সেটা দিনশেষে হিরো ছাগলে গিয়ে শেষ হবে ( আসল নাম লিখে প্রমট করলাম না!!)
  9.  কনফিডেন্ট থাকুন। দামি পোশাক আর ক্রিম দিয়েই স্মার্ট হওয়া যায় না। স্মার্ট, হ্যান্ডসাম  হওয়ার অন্যতম শর্ত হলো নিজের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী থাকা। ( ওভার কনফিডেন্ট আপনাকে অহংকারি বানাবে তাই ওভার আত্মবিশ্বাস এড়িয়ে চলুন)
  10. চুলের স্টাইল, পোশাক পরার ধরন সুন্দর করুন। তেরেনামের সময় তেরেনাম বেকহামের সময় বেকহাম এভাবে অন্যদের ফাউল অন্ধ অনুসরণ আপনাকে স্মার্ট করবে না। এটা স্মার্ট পুরুষের কাজ না। নিজের জন্য যেটা মানানসই সেটাই রাখুন হোক তা ৭০ এর দশকের পুরাতন স্টাইল।
  11. চশমা ইউজ করতে পারেন যদি সবদিক ঠিক থাকে।
  12. দাড়ি রেখে দিবেন। গোফ ছোট রাখবেন।

এবার একটু বিস্তারিত আলোচনা।

স্টাইলিশ হওয়ার উপায়

স্রোতের বাইরে যান, অথবা এমন  নদীর স্রোতে গা ভাসান যেই নদীতে সবাই যেতে পারে না।

কেনো এমন বলছি জানেন? স্টাইলিশ  হওয়ার জন্য ট্রেন্ডে ভাসলে  আপনি দিন শেষে খ্যাঁত ই থেকে যাবেন স্টাইলিশ  হতে পারবেন না। তাই ট্রেন্ডে গা ভাসাবেন না, নিজের মত চিন্তা করুন, নিজেকে দেখুন দেখে ভাল খারাপ বিচার করে নিজের জন্য নিজের মত করে স্টাইল ঠিক করুন। এই স্টাইল যদি সময়ের চেয়ে পিছানো হয় হোক সমস্যা নেই, কিন্তু নিজেকে কনফিডেন্ট রাখতে হবে। আপনার নিজের কাছেই যদি আপনি পিছিয়ে থাকা হোন তাইলে বাইরে যতই দামি ছিড়াফাটা ড্রেস ইউজ করেন না কেন লাভ নাই।  

স্টাইলিশ হতে পোশাক শালিন রাখুন। শালিন পোশাক কে সুন্দর ভাবে প্রকাশ করুন। এমন পোশাক পরিহার করুন যা পরলে আপনি নিজেই উশখুস বোধ করেন। সে পোশাক দামি হোক তাও।

শার্ট পরলে ইন রাখুন , স্লিভ একটু গুটিয়ে রাখুন। আপনার কনফিডেন্ট লেভেল বাড়বে, দেখতেও ভালো লাগবে। ( নামাজে স্লিভ ছেড়ে দিবেন) 

স্মার্ট হওয়ার জন্য শরীরের যত্ন নিন। কেনো বলছি এই কথা? দেখেন আপনি খুব সুন্দর ভাবে ড্রেস পড়ছেন, দেখতেও সুন্দর আপনিও কম্ফরট ফিল করছেন কিন্তু জার সাথে কথা বলছেন সে আপনার হাতের আঙ্গুলে থাকা হলদেটে ভাব, ফাঙ্গাস, চল্টা ছিড়া এসব দেখলে আপনাকে মোটেও একজন উত্তম ব্যক্তিত্তের কাতারে ফেলবে না। 

কিংবা ধরুন আপনার হাতের গোড়ালিতে ( নাম ভুলে গেছি!!) চড়চড়ে খসখসে হলে কেমন হবে ব্যাপারটা ?

তাই স্টাইলিশ হতে শুধু ড্রেস না , শরীরের ব্যাপারেও নজর দিন।

আরেকটা কথা, হালাল পারফিউম ইউজ করেন। ঘন্ধময় দেহ স্টাইলিশ স্মার্ট হওয়ার অন্তরায়, তাই না? 

ফ্যাশনেবল হওয়ার উপায়

ফ্যাশনেবল হতে ফ্যাশন সম্পর্কে জানতে হবে। কোন ফ্যাশন  ভালো আর সমাজে উত্তম সেদিক নজর রেখে নিজের সুবিধামত সেই ফ্যাশন  কে সেই স্টাইল কে নিজের জন্য সিলেক্ট করুন।

আপনি যদি পুরা ফাটা জিন্স ইউজার হোন আর মনে মনে অহং বোধ করে ভাব মারেন কে কি বললো তাতে আপনার কিছু যায় আসেনা তাইলে আপনি একটা গাধা! টোটাল গাধা। কারন উপরে যতই ভাব মারেন কারো কথায় কিছু যায় আসেনা কিন্তু  সত্য হলো আপনি মানুষ তাই যায় অবশ্যয় আসবে।

বুগান্ডার  শা কিব খান  ঠোঁটে লিপস্টিক দিয়ে যতই হিরোর ভাব মারুক আর Dont Care মুডে থাকুক না কেন দিন শেষে ও কিন্তু সারা দেশের শিক্ষিত সমাজের কাছে অসুস্থ রুচির খ্যাঁত পাবলিক হিসাবেই পরিচিত।

তাই নিজেকে ফ্যাশনেবল  করতে গিয়ে হাসির পাত্র বানাবেন না। আমাদের  দেশে যে ফ্যাশন অলরেডি প্রচলিত আছে সেই ফ্যাশন ই আপনাকে ফ্যাশনেবল  করার জন্য এনাফ। আপনাকে জাস্ট গুছিয়ে নিজের মত করে নিতে হবে, আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে। 

  1. হ্যান্ডসাম হওয়ার উপায় 
  2. স্মার্ট দেখানোর উপায়

নিজেকে হ্যান্ডসাম  স্মার্ট করে তোলার উপায়

১। সময় জ্ঞান ঠিক রাখুন। যে সময়ে যেটা উপযুক্ত সেটা সিলেক্ট করুন। 

২। স্থান বুঝে নিজের অবস্থা সাজান। চাকরির ইন্টার্ভিউ এ আপনি যদি নেটে ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখে টি শার্ট পরে যান তাহলে চাকরীতে আর জয়েন করা লাগবে না। খেলার মাঠে কিংবা বিচে কোর্ট টাই পরে গেলে ভালো দেখাবে? মসজিদে ইয়ো ইয়ো পোশাক?এজন্যই বলছি সময় স্থান জ্ঞান তৈরি করুন। বেশি বেশি পড়ুন তাহলে জ্ঞান বাড়বে আর চিন্তা শক্তিও বাড়বে।

৩। আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি করুন। বিলিভ মি আপনার নিজের মধ্যে কনফিডেন্ট না থাকলে শত ভিডিও ক্লিপ/ ব্লগ পোস্ট পড়েও স্মার্ট হতে পারবেন কিনা সন্দেহ।

৪। আমাদের কথায় আঞ্চলিক টান থাকে, এই টান ঘরোয়া পরিবেশে ঠিক আছে কিন্তু বাইরে, অফিসিয়াল জায়গায়, অপরিচিত কারো সাথে মিটিং এ কিছুটা নেগেটিভ প্রভাব ফেলে। আঞ্চলিক টান মুক্ত কথা বলার চেষ্টা করুন।৪। মেপে কথা বলুন।

Leave a Comment

Copy link
Powered by Social Snap