বয়ফ্রেন্ড নুড ছবি চাইলে কি করবেন? আবেগ না বাস্তবতা ?

আজকে ব্লগের এই লেখাটা শুধু ভিজিটর আনার জন্য না বরং বেশ কিছুদিন আগে থেকেই মাথায় আসছিলো এটা নিয়ে লেখার জন্য। আমি যা জানি যা দেখছি তার থেকে কিছু কথা শেয়ার করতে।
৯০ দশক থেকেই বাংলাদেশে প্রেম প্রেম খেলা পুরাদমে শুরু হয়ে গেছে। ২০০০ সালে এসে সেই প্রেম প্রেম খেলা মোটামোটি নোংরা পর্যায়ে প্রবেশ করছে আর এখন ডিজিটাল ডিভাইস সাথে সস্তা নেটের যুগে এখন এসব মহামারির রুপ নিছে।কিন্তু এই মহামারীর খারাপ ফল কে ভোগ করে? কার পরিবার ভোগ করে?মেয়ের পরিবার।
বয় ফ্রেন্ড আপনার থেকে নুড ছবি চাই, ভিডিও চাই। এসবের জন্য থাকে ইমোশনাল ব্লাকমেল, ব্রেকাপের থ্রেট, তুমি আমাকে বিলিভ করোনা  টাইপ সফট কিন্তু শক্তিশালী মানসিক খেলা।


আপনার বফ যদি আপনার নুড দিতে না চাওয়ার কারনে ব্রেকাপ করতে চাই কিংবা বিশ্বাস নিয়ে প্রশ্ন তুলে তাহলে আপনার উচিত তার সাথে আগে ব্রেকাপ করা।


আচ্ছা বলুন তো বফ গফ যখন ভিডিও চ্যাটে মাস্টারবেট করে তখন কার মুখের চেহারা দেখা যায় আর মুখের চেহারা লুকানো থাকে ?


আচ্ছা নেটে কয়জন বফের চেহারা সহ উলঙ্গ ছবি বা  ভিডিও লিক হয়?
আপনারা যারা মেয়ে তাদের কি মাথায় সামান্য ঘিলু নাই যে এটা বুঝার যেই ছেলে নিজের চেহারা লুকাচ্ছে কিন্তু আপনার চেহারা দেখে অবৈধ সুখ নিচ্ছে তারমানে এখানে কিন্তু আছে!!
ছেলে যতই বলুক দেখে ডিলিট করে দিবো রাখবো না ব্লা ব্লা …. আপনি লিখে নেন ১০০% ছেলে রেখেই দিবে। কিছু ছেলে পরে নতুন ছবি পেলে পুরাতন ছবি রিমুভ করবে  হতে পারে কিন্তু কোন ছেলেই গফের নুড দেখেই ডিলিট করবে না। রেখে দিবেই। 

প্রেমিকের সাথে অন্তরঙ্গ হওয়ার সহজ ৩ পথ! 

  1. ছবি ভিডিও না দেওয়া
  2. ব্রেকাপ করা
  3. বিয়ে করা 

আপনারা কি দেখেন না প্রতিদিন শত শত মেয়ের ন্যুড নেটে ফাস হচ্ছে সবই ঐ বফের কাছে দেওয়া  ক্লিপ? ধর্ষক এর ধারন করা কয়টা ভিডিও নেটে পাবেন? তারচেয়ে বেশি পাবেন তথাকথিত ভালোবাসার মানুষের ফাস করা ভিডিও। এরাও গফের কাছে ডিলিট করে দিবো বিশ্বাস করো না বিয়ে তো করবোই ব্লা ব্লা বলেই নিছিলো কিন্তু সুযোগ বুঝে গফ কে বাজারে নামাতে দেরি করেনি। 

ধরুন, ছেলের চেহারা সহ ভিডিও আপনি ফাস করলেন(!) এতে ঐ ছেলের কি হবে?কচু হবে! সে তার বন্ধুদের সাথে তার লিঙ্গের আকার আয়তন নিয়ে জোকস করবে হাসাহাসি করবে।
আর আপনার মানে মেয়ের ন্যুড ছবি ফাস হলে মেয়ে যদি ছ্যাঁচড়াও হয় তাও তার পরিবারে থাকা মা বাবা ভাই এদের কে সমাজে বিপদে পড়তে হবে।আপনার ভাই এর বন্ধুরা আপনার ভাইয়ের সামনে আপনার উলঙ্গ দেহ নিয়ে হাসাহাসি করলে টিটকারি করলে সেটা ভালো কিছু হবে না।
আপনি ছ্যাঁচড়া হতে পারেন তাই বফের কাছে নিজের দেহ বিকিয়ে দেন কিন্তু আপনার পরিবারের সব সদস্য তো আপনার মত না। তাই না?


এই যে ছ্যাঁচড়া টাইপ মেয়েদের কথা বললাম, এদের কথা কেনো বললাম তা লেখার শেষে বলবো । আপাতত আরেক টাইপ মেয়ে যারা আসলে ভালো কিন্তু প্রেমের আবেগের কাছে হার মেনে ভুল করে।
অনেক মেয়ে আছে ভালো চরিত্রের কিন্তু আবেগে প্রেমে পরে ভুল কাজ করে ফেলে। এদের জন্য বলবো আবেগে ভুল করার ফল আবেগে আসেনা , আসে বাস্তবে!আপনার প্রেম যদি বিয়ে ছাড়ায় দেহে গড়ায় তাহলে সেই প্রেমে ঝামেলা আছে।বফ যদি আপনাকে ভালবাসে সম্মান করে তাহলে সে আপনার চরিত্রের সম্মান কেও সম্মান করবে, আপনার স্বাভাবিক পর্দা, লাজুকতা কে সম্মান করবে।
সে যদি দেহ দেখে ভালোবাসা খুজে তাহলে আপনি তার কাছে অলরেডি বাকির খাতায় চলে গেছেন, এখন সে আপনাকে ইউজ করার জন্য ভিত্তি খুজছে আর সেই ভিত্তি হলো আপনার ন্যুড ছবি ভিডিও ইত্যাদি। 

বফ Nude চাইলে কিভাবে বুঝাবেন?

বাংলায় এস এম এস দেন বা ইংরেজি তে, যখন বফের সাথে এই টপিকে কথা বলবেন তখন ভাষা পরিবর্তন করে ভারি করে বলবেন!!নিচে কয়েকটা উদাহরণ দিলাম। এগুলো থেকে আইডিয়া নিতে পারেন। আর এমন টপিকে কথা বলার সময় “ami tmk valobasi kintu pic dibo na” টাইপ বাংলিশ লিখবেন না। 

  • I really like you, but I’m just not comfortable with sending sexts or nudes. And it makes me feel like you don’t care about me when you keep pressuring me.
  • It’s not that I don’t trust you — if your phone got hacked, lost, or stolen, the pictures could get out.
  • My parents monitor my phone. If they saw our sexts or nudes, we could both get into trouble.
  • It’s illegal for me to send you nudes and/or it’s illegal for you to have them. We could be arrested.
  • Love means respecting each other’s boundaries.
  • My feelings aren’t up for discussion — I said no.

আপনার বফ ভালবাসার দোহায় দিয়ে কিংবা আবেগ দিয়ে আপনার ছবি চাইলে সে ক্ষেত্রে আপনি যদি ছ্যাঁচড়া না হোন, মুসলিম পরিবারের হোন তাহলে আপনার উত্তর হওয়া উচিত একটাই, আর সেটা হলো ” না আমি ছবি ভিডিও দিবো না।” ভালবাসলে বাসো নাহলে ছবি ভিডিও ছাড়ায় ব্রেকাপ করো। বফ যদি আপনাকে সত্যিই ভালবাসে তাহলে সে ছবির জন্য আপনাকে ছেড়ে যাবে না আর যদি ছবির জন্য কামনার জন্য আপনার সাথে ব্রেকাপ করে খারাপ বিহেভ করে তাহলে তো বুঝেই গেলেন তাকে ছবি দেওয়া ভুল হতো!! সে ক্ষেত্রে আপনি বেচেই গেলেন।
নেটে কোটি কোটি ছবি আছে সেসব দেখে খায়েশ মিটাও! অথবা নিজেকে নিয়ন্ত্রন করো।
পর্ণ মাস্টারবেট থেকে বাচার জন্য বফ কে মুক্ত বাতাসের খোঁজের ব্লগ বই পেজ দিতে পারেন।লিংক ঃ ব্লগ | পেজ| বই  |

ছেলেদের জন্য কিছু কথা ঃ

ভাই আপনার গফের দেহে আলাদা কিছু নাই কিচ্ছু না তাই শুধু শুধু একটা মেয়ের লাইফ নষ্ট করার মানে নাই। আপনি যদি ভালো হোন তাও আপনার মোবাইল চুরি হতে পারে, আপনার বন্ধু কোন ভাবে কোন সুজগে পেয়ে জেতে পারে, Hack হতে পারে। আপনি নিজে ফাস না করলেও তারা ফাস করে দিবে তখন আপনি কি করবেন?একবার নেটে আসার পর আর থামাতে পারবেন? সম্ভব? না।


আর আপনি যদি ব্রেকাপের পর রাগের কারনে দুঃখে শয়তানের ধাক্কায় ছবি ভিডিও ফাস করেন বা করার ইচ্ছা করেন তাহলে মাথায় রাখুন এক সময় রাগ শেষ হয়ে যাবে, বেচে থাকলে বৃদ্ধ হবেন। যৌবনের হাস ফাস শেষ হয়ে যাবে কিন্তু কিয়ামত পর্যন্ত আপনার ফাস করা ভিডিও ছবি দেখে লাখ লাখ কোটি কোটি মানুষ পাপ করবে সেই পাপের সমান ভাগিদার আপনি হবেন।এতো পাপের বোঝা নিতে পারবেন তো? 
আপনারা বফ্রা এসব ফাস করেন দেখেই অন্য দিকে লাখ লাখ ছেলে পর্ণ এডিক্টেদ হয়ে যাচ্ছে, সমাজে উলঙ্গপনা বাড়ছে। মেডিকেলে পড়া ছাত্র শিশু ধর্ষণ করে খুন করে ফেলছে কারন ঐ …..পর্ণ।আর আপনারা বফের দল এই পর্ণ এর বড় একটা অংশের জন্য দায়ি। 


বাংলাদেশে কয়টা পর্ণ মুভি বের হয়? হয় কি?কিন্তু বাংলাদেশ ক্যাটাগরিতে এত ভিডিও কাদের? সব ঐ আপনাদের বফ গফ এর। আর কিছু আছে প্রবাসীদের ভুল!!!!!!
ভাই ঠাণ্ডা হোন, ৩০ মিনিট পর এম্নেই সব ঝড় থেমে যাবে। তাও শুধু শুধু নিজের  দুনিয়া আখিরাত, একাধিক পরিবার ধ্বংস করার কোন মানে নাই। কোন মানে নাইইইইইই।


গফ চিট করলে বের হয়ে আসেন, যে ভালোবাসা দিতে জানে তার জন্য ভালোবাসা খুজে পাওয়া ব্যাপার না। গফ চিট করলে সেটা তার লস আপনার না। আপনার কষ্ট লাগবে মন খারাপ হবে স্বাভাবিক কিন্তু অনে রাখেন আপনি কিছু হারান নি। আপনার ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য সে হলে সে আপনার সাথে প্রতারনা করতো না।
আর গফ যদি পরিবারের কথায় বিয়ে করে ফেলে তাহলে তো অবশ্যয় আপনারা ২ জন ই নিজ নিজ জায়গায় নিজেদের সম্মান রেখে সরে আসুন, এটাই সহজ এটাই উত্তম।


আপনি কারো ক্ষতি করে পালটা ক্ষতির মুখে পরবেন না এটা হতে পারে না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দুনিয়াতেই এর ফল অনেকে পেয়ে যায়।তাই ভুলে যান সরে যান নিজের মত করে নতুন লাইফে মন দেন তাও ছবি ভিডিও এসবে জায়েন না ফাস কইরেন না।
ধর্ষক একবার ধর্ষণ করে আর আপনারদের ফাস করা ছবি ভিডিও এর ফলে এক সময়ের আপনার ভালবাসার মানুষ লক্ষবার ধর্ষিত হয়!! আত্মসম্মানে ;আগে না? রাগের কারনে পশু হওয়া কোন সুস্থ মানুষের স্বভাব হতে পারে না। 

Leave a Comment

Copy link
Powered by Social Snap