ব্রাউজার কাকে বলে এবং কত প্রকার। ব্রাউজার এর তালিকা, ডাউনলোড লিংক

 ইন্টারনেটের যুগে ব্রাউজার একটি পরিচিত শব্দ হলেও এর মানে কি , ইতিহাসস এসব নিয়ে আমরা তেমন একটা জানিনা। আজকের পোস্টে আমরা ব্রাউজার কাকে বলে কত প্রকার প্রথম কয়েকটি Browser এর তালিকা ইত্যাদি আপনাদের সামনে প্রকাশ করার চেষ্টা করবো।

কয়েকটি browser এর নাম ও Download লিংক 

  1.  Google Chrome
  2. Opera Mini
  3. FireFox
  4. Yandex
  5. Tor 
  6. Browser — apps ( For Mobile ) 

ব্রাউজার কাকে বলে ?

 ব্রাউজার এমন একটি সফটওয়্যার যার মাধ্যমে একজন ব্যবহারকারী যেকোনো ওয়েবপেইজ, ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে অথবা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কে অবস্থিত কোনো ওয়েবসাইটের যেকোনো লেখা, ছবি এবং অন্যান্য তথ্যের অনুসন্ধান, ডাউনলোড করতে পারবে, দেখতে পারবে। ব্রাউজ করা বা সোজা বাঙ্গায় ঘাটাঘাটি করতে পারবে(!) 

প্রথম Web Browser কোনটি 

“World Wide Web” হলো প্রথম  Web Browser কিন্তু নেটের সাথে এর নামের মিল থাকায় পরে ব্রাউজারের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় Nexus ! এদিক থেকে প্রথম ব্রাউজারের নাম হিসাবে Nexus বলা জেতে পারে। ১৯৯০ সালে টিম বারনার লি www এবং ব্রাউজার তৈরি করেন। 

এরপরেও কথা থেকে যায়!! Nexus Browser শুধুমাত্র একটি অপারেটিং সিস্টেমে চলতো । ১৯৯৩ সালে Mosaic Browser আসে যা প্রথম কমারশিয়ালি বাজারে আসে। এই ব্রাউজারে প্রথম ইমেল , চ্যাটরুম ইত্যাদির সুবিধা ছিলো।

প্রথম জনপ্রিয় ব্রাউজার এর নাম NetScape! যা পরে মজিলা নামে পরিবর্তন হয়। 

ব্রাউজার কাকে বলে

সাল ভিত্তিক ওয়েব ব্রাউজারের ইতিহাস 

১৯৯০ ঃ WorldWideWeb ব্রাউজার পরে নাম হয় Nexus

১৯৯১ঃ লাইন মোড ব্রাউজার

১৯৯২ঃ ErWsie, MacWWW ইত্যাদি 

১৯৯৩ঃMosaic, Cellio 

১৯৯৪ঃ IBM Web Explorer, Netscape 

২০০২ ঃ Mozilla 1.0 , NetScape 7

২০০৩ ঃ Apple Safari, Opera 7

২০০৪ ঃ ফায়ারফক্স 

২০০৬ ঃ মজিলা ফায়ার ফক্স

২০০৮ ঃ গুগল ক্রোম 

পরে আরো অনেক ব্রুজার আসছে। মাঝেও অনেক ওয়েব ব্রাউজার ছিলো সবগুলোর নাম লিখার প্রয়োজন মনে করিনি তাই লিখলাম না।

মেইন্সট্রিম সব ব্রাউজার ই পরে তাদের ভার্সন পরিবর্তন করছে, ওয়েব সফটওয়্যার এর উন্নতি করছে। 

কয়েকটি ব্রাউজার এর তালিকা ও তাদের বিস্তারিত

গুগল ক্রোম

গুগল ক্রোম ব্রাউজার প্রথম বাজারে আসে ২০০৮ সালে। মাইক্রোসফট অপারেটিং এর জন্য। পরে আরো অন্য অপারেটিং সিস্টেমেও এটি চালু হয় এবং এন্ড্রয়েডের জন্য ক্রোম কে ডিফল্ট Browser হিসাবে রাখা হয় । বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্রাউজারের মধ্যে ক্রোম অন্যতম। ব্রাউজার ইউজারের ৭০% ই গুগল ক্রোম ইউজ করে থাকে ।

ক্রোম ব্রাউজারের সুবিধা

  • অনেক গুলো ট্যাব এক সাথে খোলা যায়, পরিবর্তন করা যায়। 
  • দ্রুত ও হালকা। 
  • ওপেন সোর্স। 

ক্রোম ব্রাউজারের অসুবিধা

  • মাঝে মাঝে লোড হতে সময় নেই।
  •  প্রাইভেসি নিয়ে রিস্ক আছে। 
  • বেশি RAM ইউজ করে।
ক্রোম অপেরা ফায়ার ফক্স

মজিলা ফায়ার ফক্স 

বেশ কয়েক বছর আপডেটের পরে, মোজিলা 1.0, প্রথম প্রধান সংস্করণ 2002 সালে প্রকাশিত হয়েছিল এই সংস্করণটিতে স্যুটে অন্তর্ভুক্ত ব্রাউজার, ইমেল ক্লায়েন্ট এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলির অনেকগুলি উন্নত সুবিধা ছিলো , তবে অনেকেই এটি ব্যবহার করেনি।

 2002 এর মধ্যে, ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের 90% এরও বেশি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার দিয়ে ব্রাউজ করছে। এ সময় খুব বেশি লোক লক্ষ্য করেনি, তবে ফিনিক্সের প্রথম সংস্করণ (পরে ফায়ারফক্সে নতুন নামকরণ করা হয়েছিল ) ও সে বছর রিলিজ হয়েছিলো। 

ফায়ারফক্স ১.০ ভার্শন টি ২০০৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল এবং এটি একটি বড় সাফল্যে পরিণত হয়েছিল – এক বছরেরও কম সময়ে, এটি 100 মিলিয়নেরও বেশি বার ডাউনলোড হয়েছিল। এর পর থেকে ফায়ারফক্সের নতুন সংস্করণগুলি নিয়মিত প্রকাশিত হয়েছে এবং নতুন রেকর্ড স্থাপন করছে। ফায়ারফক্সের জনপ্রিয়তা ব্যবহারকারীদের কাছে পছন্দ ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করেছে। 

অপেরা মিনি

অপেরা ব্রাউজারের শুরু ১৯৯৫ সালে। এটি এখন অন্যতম পুরাতন পিসি ব্রাউজার। অপেরার মোবাইল এর জন্য কয়েকটি আলাদা আলাদা ভার্সন আছে। অপেরা মিনি, অপেরা টাচ, অপেরা GX. ১৯৯৪ সালে Jon Stephenson von Tetzchner and Geir Ivarsoy নামের দুজন অপেরা তৈরি করার কাজ শুরু করে। 

ইউসি ব্রাউজার

চাইনা ভিত্তিক ব্রাউজার। নানা অসুবিধা আছে আবার কিছু সুবিধাও আছে কিন্তু আমি এই ব্রাউজার ইউজ করে কখনো মজা পাইনি কাজের কিছুও পাইনি!!  

ব্রাউজার ফ্রি কেনো হয় ?

অনেক কারনেই ওয়েব ব্রাউজার ফ্রি হতে পারে । কিনতি ইন্টারনেটে প্রকৃত অর্থে কিছুই ফ্রি না!!

আপনি যখন ফায়ারফক্স ব্রাউজার ইউজ করেন তখন তাদের সার্চ বক্সে ডিফল্ট ভাবেই গুগল সার্চ ইঞ্জিন থাকে। আপনি ফায়ারফক্স দিয়ে কিছু সার্চ করলে ধরে নেওয়া যায় তা গুগলেই করেন। এখানেই গুগলের সাথে ফায়ারফক্স এর চুক্তি!! ২০০৮ সালে ফায়ারফক্স ৫০ মিলিয়ন ডলার খরচ করে ৭৮ মিলিয়ন ডলার ইনকাম করে!

যত মানুষ ফায়ার ফক্স ইউজ করবে তাদের ইনকাম ও তত বাড়বে! এখন বলেন বেশি মানুষ কখন কিছু ইউজ করে? ফ্রি পেলে নাকি কিনে নিতে হলে? ফ্রি তে পেলে মানুষ বেশি ইউজ করে।

সেম কথা অপেরার জন্যও।

আবার অন্য দিকে গুগল ক্রোম ফ্রি কারন আপনি গুগলের ব্রাউজার দিয়ে নেটে যা কিছু করেন তার সব কিছুর উপর গুগল লক্ষ রাখতে পারে! আপনি কতক্ষন নেট ব্রাউজ করছেন কোন কোন সাইটে যান কতক্ষন থাকেন, কোন কোন সাইটে কেনাকাটা করেন সবই গুগল নজর রাখতে পারে ক্রোম ব্রাউজারের মাধ্যমে! এতে করে আপনার কাছে বেশি বেশি রিলেভেন্ট এড দেখিয়ে গুগল বেশি ইনকাম করার সুযোগ পায়।

মোট কথা তারা আপনাকে ফ্রি তে ব্রাউজার দিচ্ছে ঠিকি কিন্তু আপনাকে ইউজ করে তারা ইনকাম ও করে নিচ্ছে। এই জন্যই বলেছি নেটে কিছুই ফ্রি না। কিছু ফ্রি হলে সেখানে কিন্তু আছে, সেই কিন্তু আপনাকে বুঝতে হবে। 

কিভাবে ব্রাউজার ইউজ করতে হয়

১। ব্রাউজার ডাউনলোড করুন

২। ডিভাইসে ইন্সটল করুন

৩। ইউজ করুন।

আধুনিক ওয়েব ব্রাউজারগুলি কোথা থেকে এসেছে?

ওয়েব ব্রাউজারগুলির অনেকগুলি সংস্করণ এসেছে এবং চলে গেছে, তবে আমরা আধুনিক ওয়েব ব্রাউজারগুলির সাথে সংযুক্ত বৈশিষ্ট্যগুলি নেটস্কেপ নেভিগেটরের, যা মোজাইকের ভিত্তিতে নির্মিত হয়েছিল। যদিও এটি প্রথমটি ছিল না, নেটস্কেপ ছিল প্রথম দিকে ব্যবহৃত বহুল ব্যবহৃত ব্রাউজার, শিল্পের মান নির্ধারণ করে।

প্রথমদিকে, নেটস্কেপ পৃষ্ঠাগুলি এবং চিত্রগুলির প্রগতিশীল রেন্ডারিংগুলি প্রবর্তন করেছিল। পুরো পৃষ্ঠা বা চিত্রগুলি সম্পূর্ণ ডাউনলোড করার আগে এটি কোনও পৃষ্ঠার পাঠ্যটি পড়তে দেয় নেটস্কেপ 1.0 প্রথম বাজারে 1994 সালের অক্টোবরে “মোজিলা” (পরিচিত শব্দ?) নামে প্রকাশিত হয়েছিল।

1998 সালে, নেটস্কেপ আরও উন্নত সংস্করণ প্রকাশ করেছে যা ব্রাউজারের সোর্স কোডটিকে ওপেন সোর্স হিসাবে মজিলা প্রকল্পটি কার্যকরভাবে শুরু করে সেই থেকে, ওয়েব ব্রাউজারগুলি জাভাস্ক্রিপ্ট পরিবর্তন এবং ওয়েব পৃষ্ঠাগুলিতে আরও অনেকগুলি ক্ষমতা যুক্ত করেছে।

WorldWideWeb ইন্টারনেট ব্রাউজিং আনন্দের প্রায় 30 বছর বন্ধ লাথি মেরে, এটি সব শুরু করে। প্রতিযোগিতামূলক মার্কেটপ্লেসের কারণে আমরা ওয়েব ব্রাউজারগুলিতে দ্রুত উন্নতি দেখেছি – আসলে, ম্যাক্সফ্রেসের ম্যাক্সের জন্য এজের একটি নতুন সংস্করণ রয়েছে । যদিও নেটস্কেপ প্রথম জনপ্রিয় ব্রাউজার ছিল, এখন আমাদের কাছে “বড় পাঁচটি:” গুগল ক্রোম, মাইক্রোসফ্ট এজ, মোজিলা ফায়ারফক্স, অ্যাপল সাফারি এবং অপেরা রয়েছে। এই সমস্ত অগ্রগতি মোজিলা প্রকল্পের মূল উত্স কোড দ্বারা চালিত হয়; আসুন সত্য কথা বলা যাক, ইন্টারনেট ব্রাউজ না করে জীবন বেশ নিস্তেজ হয়ে উঠবে।

Leave a Comment

Copy link
Powered by Social Snap